5 Smart Budgeting Tips for First Time Homeowners

You have moved into your own apartment for the first time and you couldn’t be more thrilled to finally have a place to call your own. However, if you have bought your apartment on home loan or using installment facility, you need to keep a check on your expenses so that you are not financially stressed. To aid you in management of your finances like a pro after being a homeowner, here are some budgeting tips to follow:

Control utility bills

When you are living in your own place, you are accountable for every drop of water, every volt of electricity and every gust of air from your air conditioner. All of these pile up on your monthly utility bill. Since you have just recently become a first time home owner, check that your utility bills do not sky rocket. Careful consumption of power and water can save energy as well as reduce your electricity bill. Use energy efficient appliances at home and minimize wastage, such as closing water tap while brushing your teeth or switching off power when electronics are not in use.

Cut back on other costs

Apart from the utility bills, you also need to monitor expenses spent elsewhere in your household, such as grocery, internet bill, cable line, shopping etc. After you have recently become a homeowner you need to be as thrifty as possible. For instance, choose economic internet packs and curb your shopping habits to balance your finances.

Don’t splurge on furniture

After you have moved into your own apartment, you might be tempted to decorate your apartment as your dream home. But if you are on a budget it is best to spend only on the necessities. Check out what stuff you can still use from your prior living space. Unless something is so obsolete that it cannot be used, don’t splurge unnecessary. You will have all the time in the world to decorate your home the way you want.

Keep separate accounts for various expenses

A smart budgeting plan for first time homeowner is to have dedicated reserve for different household expenditure. For example, say you earn Tk. 60k per month. Keep an amount out of your salary for groceries, and another for your utility bills and so on. You can store the cash in envelopes and label those. This way it will be easier for you to track down how much you are spending on each item and control the expenses smartly.

Make an educated guess

When it comes to figuring out a budget for managing your apartment smoothly, you need to be aware of the expenses and be conservative about it. For instance, if you do not know how much tax you will have to pay, you can set an educated lump sum for it and after the first time you will be aware how short or high you were in your budgeting skill.

You should monitor your household expenses for at least a year after you have moved in. This way you can figure out your expenditure and budget for the future accordingly. If you have a trick up your sleeve on how to budget for your household, do share with us on bti blog’s comment section below.

*****************************************************************************************

প্রথমবারের মত বাড়ির মালিকদের জন্য খরচ করার ৫টি কৌশল

অনুবাদক: মোঃ মাসুদ খান

আপনি আপনার এপার্টমেন্টে প্রথমবারের মত উঠেছেন এবং আপনি এটা ভেবে শিহরিত হবেন যে আবশেষে আপনি আপনার নিজের ঘর পেয়েছেন। আপনি যদি ঋণ নিয়ে এপার্টমেন্ট কিনেন বা কিস্তি সুবিধায় ক্রয় করেন তাহলে আপনাকে আপনার খরচের প্রতি সতর্ক থাকতে হবে যাতে আপনি আর্থিকভাবে সমস্যায় না পরেন । বাড়ির মালিক হওয়ার পর আপনার আর্থিক ব্যবস্থাপনায় পেশাদারীত্ব আনার জন্য নীচে কিছু খরচের তালিকা অনুসরণ করার পরামর্শ দেয়া হলঃ

ইউটিলিটি বিল নিয়ন্ত্রণ করুনঃ

যখন আপনি আপনার নিজের বাড়িতে থাকছেন তখন আপনি নিজেই প্রতি ফোটা পানি, প্রতি ভোল্ট বিদ্যুত এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র থেকে বাতাসের প্রতিটি প্রবাহের হিসাব রাখতে হবে। এর সবগুলোই আপনার মাসিক ইউটিলিটি বিলে জমা হয়। যেহেতু আপনি মাত্রই প্রথম বারের মত বাড়ির মালিক হয়েছেন তাই সতর্ক থাকুন যেন আপনার মাসিক ইউটিলিটি বিল আকাশচুম্বী নয়। সতর্কভাবে পানি এবং বিদ্যুৎ এর ব্যবহার শক্তি সঞ্চয় করতে পারে সাথে সাথে আপনার মাসিক ইউটিলিটি বিল কমাতে পারে। বাড়িতে শক্তি সাশ্রয়ী গৃহস্থালী সামগ্রী ব্যবহার করুন এবং অপচয় রোধ করুন, যেমনঃ দাত ব্রাশ করার সময় পানির কল বন্ধ রাখুন অথবা বৈদ্যুতিক যন্ত্র যখন ব্যবহার না হয় তখন সুইচ বন্ধ রাখুন।

অন্যান্য খরচ কমানঃ

ইউটিলিটি বিল ছাড়াও আপনাকে গৃহস্থালীর অন্যান্য খাতে খরচের উপরও লক্ষ রাখতে হবে যেমনঃ মুদি সদাই, ইন্টেরনেট, ডিসের বিল, কেনাকাটা ইত্যাদি। নতুন বাড়ির মালিক হওয়ার পর আপনাকে যতটুকু সম্ভব মিতব্যয়ী হতে হবে। উদাহরনস্বরূপ, মিতব্যয়ী ইন্টেরনেট প্যাক নির্বাচন করুন এবং আপনার আর্থিক ভারসাম্য বজায় রাখতে কেনাকেটার অভ্যাসে পরিবর্তন আনুন।

আসবাবপত্রের উপর অপচয় করবেন নাঃ

নিজের এপার্টমেন্টে উঠার পরে আপনি হয়ত আপনার এপার্টমেন্টকে স্বপ্নের মত করে সাঁজাতে চাইবেন। কিন্তু যদি আপনার একটি খরচের তালিকা থাকে তাহলে শুধু মাত্র প্রয়োজনীয় জিনিসের উপর খরচ করাই শ্রেয়। ভেবে দেখুন আগে যেখানে বসবাস করতেন সেখান থেকে কোন জিনিসগুলো আপনি এখনও ব্যবহার করতে পারবেন কিনা। কোন জিনিস ব্যবহার করার অযোগ্য না হয়ে গেলে অযাচিতভাবে খরচ করবেন না। আপনি আপনার ঘরকে নিজের মত করে সাজানোর জন্য পৃথিবীর সমস্ত সময় পাবেন।

বিভিন্ন খরচের আলাদা আলাদা হিসাব রাখুনঃ

প্রথমবারের মত বাড়ীর মালিকদের একটি কৌশলী খরচ তালিকায় বিভিন্ন খাতে খরচের টাকা নির্দিষ্ট করে সংরক্ষিত থাকে। উদাহরণস্বরূপ, ধরুন আপনি প্রতি মাসে ৬০,০০০/- টাকা উপার্জন করেন। আপনার বেতনের একটি অংশ মুদি সদাই এবং অন্য একটি অংশ ইউটিলিটি বিল এইভাবে ভাগ করে রাখুন। আপনি নগদ টাকা খামের ভিতর ঢুকিয়ে রাখতে পারেন এবং কোন খাতের জন্য তা উপরে লিখে রাখতে পারেন। এই ভাবে কোন খাতে কত খরচ করছেন তা নির্দিষ্ট করা আপনার জন্য সহজ এবং আপনি সহজেই আপনার খরচ নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

জেনে অনুমান করুনঃ

যখন আপনার এপার্টমেন্টের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্য খরচের তালিকার একটি ছক তৈরি করতে হবে তখন আপনাকে খরচের প্রতি এবং মিতব্যয়ী হওয়ার প্রতি সচেতন হতে হবে । উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনি না জানেন আপনাকে কত টাকা কর দিতে হবে তাহলে আপনি এর জন্য যথেষ্ট বরাদ্দ রাখতে পারেন এবং প্রথম বারের পরে আপনি বুঝতে পারবেন খরচের তালিকা তৈরিতে আপনার দক্ষতা কতটুকু কম বেশি।

আপনার বাড়িতে উঠার পর অন্তত এক বছর গৃহস্থালী খরচের উপর নজর রাখা উচিত। এইভাবে আপনি আপনার খরচের পরিমাপ করতে পারবেন এবং একইভাবে ভবিষতের জন্য খরচের তালিকা বানাতে পারবেন। যদি আপনার গৃহস্থালী খরচের তালিকা কিভাবে তৈরি করতে হয় তার কৌশল জানা থাকে তাহলে নীচে বিটিআই ব্লগের মন্তব্য বিভাগে আপনার মতামত শেয়ার করতে পারেন।