The Mutation of Your Land- What is it and how it is done?

When you have acquired a new property, there are a lot of steps involved and formalities to be completed in order to seal the deal. These tiny little steps, although may seem extraneous are necessary to avoid any nasty future surprises from cropping up to take away from you the joy of property ownership. One of these steps is called the mutation process, which simply means changing the name of the old owner to the new owner after transfer of ownership of property.

Mutation is a crucial step which will help establish your proprietary rights. Also, if you have bought a property for renting out, you are required to have a new holding to avoid complications when receiving rent payment and for asserting your rights over your property.

You may have come across the property through buying, selling, will, inheritance or from Government. However, unless you have possession of mutation documentation, you will not be able to claim ownership.

Moreover, if you bought a property and have not done mutation, the person you bought it from, may scam you by selling the property again to another person. Also, it is essential to get mutation of your property done for the purpose of transfer, registration as well as payment of tax.

Who carries out mutation?

If you want to carry out mutation of your property, you need to apply to the AC Land (Assistant Commissioner, Ministry of Land) for changing the name of the owner in the official record. However, prior to that another assistant mutation officer will oversee the procedure and an officer will be there to receive the mutation fees. An assistant settlement officer, known as Tahshilder will conduct an enquiry for confirmation of accurate ownership of the property.

How to apply?

You need to fill out a form which is downloadable from the official website of the Ministry of Land. You can apply it yourself or through a representative and present the necessary documents and fees. When filling up the form, you need to provide complete accurate and detailed information about yourself as well the property for smooth processing.

You need to provide your personal information, as well as information of who you acquired the property from along with details information about the property including its size, registration deed number and date.

What are the documents required for mutation?

You need also submit some required documents with your form such as will copy if you inherited the property or sale deed, receipt of payment of land development tax, khatiyan copy, passport size photograph, etc.

You need to submit the mutation application with court fees and other required fees for the whole process to the pertinent authority.

To enjoy your property ownership and assert your rights of home ownership, it is recommended you carry out mutation of your property as soon as possible after you have acquired it. This way, your property will be safe and secure and you can live in your property without any worries.

********************************************************************************

জমির নামজারী কি এবং কিভাবে করা হয়?

আহমেদ নাজিয়া

যখন আপনি একটি নতুন সম্পদ কিনবেন, নানান রকমের আনুষ্ঠানীকতা এবং ধাপ রয়েছে সেই প্রকিৃয়া সম্পূর্ণ হবার জন্য। এই ছোট ছোট ধাপগুলোকে আপাতদৃষ্টিতে অপ্রয়োজনীয় মনে হতে পারে কিন্তু আসলে এগুলো ভবিষ্যতের অনাকাক্ষিত ঝামেলার এড়াবার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এরকম কিছু গুরুত্বপূর্ণ ধাপের একটি হচ্ছে সম্পদের নামজারী যার মানে হচ্ছে একজনের সম্পদ আরেকজন কিনে নেবার পর পূর্বের মালিকের কাছ থেকে নতুন মালিকের নামে সম্পদ হস্তান্তর।

নামজারী পদ্ধতি আপনাকে আপনার সম্পদের সঠিক অধিকার নিশ্চিত করে। এমনকি নিজের সম্পদ ভাড়া দেবার ক্ষেত্রেও আপনাকে মিউটেশনের মাধ্যমে হোল্ডারের নাম উল্লেখ করতে হবে যাতে করে ভাড়া আদায় এবং নিজের সম্পদের উপর অধিকারের ক্ষেত্রে ঝামেলা তৈরি না হয়।

আপনি আপনার সম্পদ কেনা, বেচা, উইল, পৈত্রিক অথবা সরকারের কাছ থেকে পেতে পারেন কিন্তু যতোক্ষন না নামজারীর মাধ্যমে কাগজপত্র আপনার নামে ঠিক না হবে ততোক্ষন পর্যন্ত আপনি মালিকানা পাবেন না।

আপনি কারো থেকে কোন সম্পদ কিনলেন কিন্তু নামজারী করালেন না, সেক্ষত্রে বিক্রেতা আপনার সম্পদ আরেক জনের কাছে বিক্রয় করার অধিকার রাখে। এছাড়া সম্পদের নামজারী ট্রান্সফার, রেজিস্ট্রেশন, ট্যাক্সপেমেন্টের জন্যও করা জরুরী।

নামজারী কে করে থাকে?

আপনি আপনার সম্পদের নামজারী করাতে চাইলে প্রথমেই আপনাকে এসি ল্যান্ডের (এসিস্ট্যান্ট কমিশনার,ভূমি মন্ত্রনালয়) কাছে আবেদন করতে হবে। পুরো প্রক্রিয়াটা একজন এসিস্ট্যান্ট মিউটেশন অফিসারের তত্তাবধানে চলবে এবং আরেকজন অফিসার সেখানে উপস্থিত থাকবে ফি গ্রহনের জন্য। একজন এসিস্ট্যান্ট সেটেলমেন্ট অফিসার যে কিনা “তাহশিলদার’ নামে পরিচিত তিনি সম্পদের আসল মালিক সম্পর্কে খোজখবর নেবেন ।

কিভাবে দরখাস্ত করতে হবে?

আপনাকেএকটা ফরম পূরন করতে হবে যা আপনি ভূমিমন্ত্রমালয়ের ওয়েব সাইট থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনি নিজে অথবা আপনার পরিচিত কাউকে দিয়েও কাজটা করাতে পারবেন। দরখাস্ত পূরনের জন্য অবশ্যই আপনাকে আপনার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সেখানে দিতে হবে, যেমন কার থেকে কিনেছেন, সম্পদের পরিমান, ডিড রেজিস্ট্রেশন নাম্বার, তারিখ ইত্যাদি।

মিউটেশনের জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবে?

কাগজপত্র যেমন –আপনার সম্পদ কেনার তথ্য সম্বলিত কাগজের কপি, ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ট্যক্সের টাকা পরিশোধের রিসিট, খাতিয়ান কপি, পাসপোর্ট সাইজ ছবি ইত্যাদি।

নামজারীর আবেদনপত্র আপনাকে কোর্ট ফিসহ সঠিক কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিতে হবে।

নিজের সম্পদের মালিকানা পেতে অবশ্যই যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব নামজারীর কাজ করাতে হবে। এভাবেই নিজের সম্পদ নিরাপদ থাকবে এবং ভবিষ্যতে এগুলো নিয়ে আপনাকে বাড়তি চিন্তাও করতে হবে না।